ভেড়ভেড়ী ইউপি সচিবের বিরুদ্ধে ব্যাপক অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে

184

তফিজ উদ্দিন আহমেদ,খানসামা (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃদিনাজপুর  জেলা খানসামা  উপজেলার ২ নং ভেড়ভেড়ী  ইউপি সচিব ফরহাদ হোসেন  এর বিরুদ্ধে ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ  উঠেছে। সূত্রে জানা যায়,২০২১-২২ অর্থবছরে দিনাজপুর এলজিএসপি কর্তৃক বরাদ্দকৃত দুইটি ল্যাপটপ ক্রয় করে সচিব ইউনিয়ন  ডিজিটাল সেন্টারের উদ্যোক্তাকে   প্রদান করার  কথা কিন্তু সচিব তা না করে আত্মসাৎ করেছেন বলে অভিযোগ উঠলে পর গতকাল সরেজমিনে  ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারে গিয়ে উদ্যোক্তাদের কে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, ওই অর্থবছরের ল্যাপটপ দুইটি আমরা এখন পর্যন্ত পাইনি।এছাড়াও তিনি এর আগে একটি ডেক্সটপও বাসায় নিয়ে গেছে।তবে ল্যাপটপ দুইটি ইউনিয়ন সচিবের কাছেই রয়েছে বলে জানান উদ্যোক্তারা। নাম প্রকাশ না করার শর্তে একজন সচেতন ব্যক্তি বলেন,২নং ভেড়ভেড়ী ইউপির সাধারণ মানুষের পিছু ছাড়ছেনা জন্মনিবন্ধনে অতিরিক্ত অর্থ আদায় থেকে শুরু করে সচিবের নানাহ অনিয়ম-দুর্নীতি।সচিবের ভাড়াটে বহিরাগত লোক নিয়ে এসে গ্রামের কৃষকের  এহেনো অভাবের মাঝেও  অবৈধভাবে ইউনিয়ন থেকে হাজার হাজার টাকা ট্যাক্স উত্তোলন করে ব্যাংকে জমা না রেখে তা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে।ইতপূর্বে ইউনিয়ন পরিষদে নিম্ন মানের সিসি ক্যামেরাসহ নিম্ন মানের মালামাল সরকারি বরাদ্দে নিজেই সরবরাহ করেন।  এ ব্যাপারে সচিব ফরহাদ এর কাছে সরাসরি জানতে চাইলে তিনি বলেন ল্যাপটপ দুইটির একটি আমার বাসায় ও আরেকটি চেয়ারম্যানের বাসায় রয়েছে।ইউনিয়নের জনগনের  ট্যাক্সের  কত হাজার টাকা আদায় করা হয়েছে বা ব্যাংকে জমা রয়েছে তার কোনো সদুত্তর দিতে পারেনি বা ব্যাংকের জমা স্লিপও দেখাতে পারেনি সচিব। তাই অতিসত্তর এলাকাবাসী অপরিনাম দোষী  দুর্নীতিবাজ সচিবের অন্যত্র বদলির দাবিও জানান।