রং বাহারি ফুল ক্যালেন্ডুলা

43

লেখা ও ছবি : মোহাম্মদ নূর আলম গন্ধী : ক্যালেন্ডুলা শীতকালীন মৌসুমী ফুল। এটি মূলত দক্ষিণ ইউরোপের প্রজাতি। তবে আমাদের দেশের আবহাওয়ায় বেশ মানানসই বলে শুরু হয়েছে চাষাবাদ ও বিস্তার। ইংরেজি নাম ঈধষবহফঁষধ, চড়ঃ সধৎরমড়ষফ, ঋরবষফ সধৎরমড়ষফ, ঊহমষরংয সধৎরমড়ষফ ইত্যাদি। পরিবার অংঃবৎধপবধব, উদ্ভিদতাত্ত্বিক নাম ঈধষবহফঁষধ ড়ভভরপরহধষরং। এ ফুলের রয়েছে আকর্ষণীয় ও রং বাহারি নানান রঙের ফুল। ফুলটি এ জন্য বেশ জনপ্রিয়। সাদা, হলুদ, কমলা, গাঢ় কমলা ও কমলা লাল রঙের ফুল চোখে পড়ে। ফুল ঊর্ধ্বমূখী। গাছের কাণ্ডের মাথায় ফুল ধরে। ফুলের গঠন অনকেটা সূর্যমুখী ফুলের আকৃতি। তবে আকারে ছোট। বৃন্তের উপর চওড়ায় প্রায় ১০ সেন্টিমিটার হয়ে থাকে। ফুল গোল চাকতির মতো, চারিদিকে ছোট ছোট অসংখ্য পাপড়ি ও মাঝে পরাগ অবস্থিত। ফুটন্ত ফুলের সৌন্দর্য বেশ অনেক দিন স্থায়ী থাকে। কাট ফ্লাওয়ার হিসেবে ক্যালেন্ডুলা ব্যবহার উপযোগী। এর ফুল সিঙ্গেল বা ডাবল হতে পারে। ডাবল ফুল দেখতে বেশি সুন্দর দেখায়। রং বাহারি এ ফুল শীতের প্রকৃতি সৌন্দর্যকে বাড়িয়ে দেয় অনেকগুণ। শীতের শেষে বসন্তের আগমনে এর ফুল কিছুদিন টিকে থাকলেও বসন্তের মাঝামাঝি সময়ে ফুল শেষ হয়ে যায়। গাছ ঝোপালো ও দ্রুতবর্ধশীল, রসালো ও নরম প্রকৃতির হয়। গাছের গড় উচ্চতা এক থেকে দেড় ফুট হয়ে থাকে। পাতা রঙে সবুজ, খসখসে, রোমশ ও লম্বা আকৃতির হয়। চাষাবাদ মৌসুম মূলত শীতকাল। বাসা-বাড়িতে চাষের ক্ষেত্রে বাড়ির সামনের ফাঁকা জায়গায় বেড তৈরি করে নিতে হবে এবং ছাদের টবেও রোপণ উপযোগী ফুল গাছ। রৌদ্রউজ্জ¦ল, সুনিস্কাশিত উর্বর জৈব পদার্থ সমৃদ্ধ দো-আঁশ থেকে বেলে দো-আঁশ মাটি এ ফুল চাষের জন্য উত্তম। প্রয়োজনে সেচ দিতে হবে। গাছের ভাল বৃদ্ধির জন্য সুষম সার ব্যবহার করতে এবং রোগ-পোকার আক্রমণ দেখা দিলে তা দমনের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। এ ফুল গাছ রোপণের জন্য অক্টোবর থেকে নভেম্বর মাস উত্তম সময়। বীজের মাধ্যমে এর বংশ বিস্তার করা হয়। আমাদের দেশের পারিবারিক বাগান, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের বাগান, ছাদ বাগানের টবে, পার্ক ও উদ্যানে ক্যালেন্ডুলা ফুল বেশ চোখে পড়ে।