করোনা প্রতিরোধে ইবি শিক্ষার্থীর ব্যতিক্রমী উদ্যোগ

21

ইবি প্রতিনিধি- বিশ্বে নতুন আতঙ্ক এখন করোনা ভাইরাস। যেটি বিদ্যুতের গতিতে ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে। এ ভাইরাসের দ্রুত বিস্তার রোধে পুরো দেশ লকডাউন ঘোষণা করেছে সরকার। ফলে সবচেয়ে বেশি সমস্যায় পড়েছে খেটে খাওয়া দরিদ্র মানুষেরা৷ দেশের এমন সংকটময় মুহুর্তে চোখের সামনে অন্ধকার ছাড়া কিছুই দেখতে পাচ্ছে না তারা। 
সবাই যখন করোনা ভাইরাসে আতঙ্কিত হয়ে নিরাপদ আশ্রয় খুঁজতে ব্যস্ত। তখন কেউ কেউ ব্যস্ত হয়ে পড়েছে আপনাকে আমাকে ও শহরকে নিরাপদ রাখতে। ব্যস্ত হয়ে পড়েছে খেটে খাওয়া দিনমজুর মানুষদের নিরাপত্তা নিয়ে।
বলছি, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের এক আত্নত্যাগী শিক্ষার্থীর কথা। যিনি নিজ উদ্যেগে করোনা ভাইরাস আতঙ্কে গৃহবন্দী এলাকার নিম্ন আয়ের মানুষদের সহায়তায় গড়ে তুলেছেন মানবতার দেওয়াল। মেহেরপুর জেলার সদরে অবস্থিত মূখার্জি পাড়াতে এ মানবতার দেয়াল গড়ে তুলেছেন তিনি। 
খোজ নিয়ে জানা যায়, দেশের এমন ক্রান্তিলগ্নে নিন্ম আয়ের মানুষদের পাশে দাঁড়ানো ওই শিক্ষার্থীর নাম সাব্বির আহমেদ। তিনি ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) বায়োটেকনোলজি এন্ড জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র। তার নিজ উদ্যেগে গড়ে তোলা এ দেওয়ালে লেখা আছে ‘যেটা প্রয়োজন সেটা নিন অন্যকে সুযোগ দিন’, যার যা প্রয়োজন নিয়ে যান তবুও বাহির হয়েন না’, আপনিও এখানে দ্রব্যাদি রেখে যেতে পারেন’ যার প্রয়োজন তিনি নিবেন, সামর্থ্যবানেরা দিয়ে যাবেন।’ এখানে শাম্পু, সাবান, তেল, লবন, ডাউল ও চাল সহ নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি রাখা হয়েছে।
তিনি শুধু এ মানবতার দেওয়াল স্থাপন করেই ক্ষ্যান্ত হননি। করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় নিজ বাসায় মাক্স তৈরি করে শহরের বিভিন্ন দোকানপাটে বিলিয়ে দিচ্ছেন তিনি। শুধু তাই নয় শহরের প্রধান প্রধান রাস্তাঘাটে ব্লিচিং পাউডার দিয়েও পরিষ্কার করেছেন।
তার ধারণা- আমি একজন মধ্যবিত্ত পরিবারের সন্তান। আমার মত মানুষ যদি দেশের এমন সংকটময় মুহুর্তে অন্যের সাহায্যে পাশে দাঁড়াতে পারি হইতো আমার এ সামান্য কাজটুকু দেখে সমাজের বিত্তবানরা অনুপ্রাণিত হবে। এবং তারাও এগিয়ে আসবে মানবতার সেবায়। সে লক্ষ্যে করোনা ভাইরাস থেকে সচেতন হওয়ার  জন্য তিনি কাজ করে যাচ্ছেন। 
তার এমন সচেতনতামূলক কাজের জন্য বিভিন্ন মহল থেকে অনেকে তাকে সাহায্যের হাত বাড়িয়েছেন। তার এমন মহৎ কাজে সহযোগিতার জন্য একটি বিকাশ নাম্বারও দেয়া রয়েছে। চাইলে আপনি আমিও পারি অন্যের পাশে দাঁড়াতে। বিকাশ নাম্বার 01987476241 (পারসোনাল)।
তার এই আত্মত্যাগের বিষয়ে জানতে চাইলে সাব্বির আহমেদ বলেন, সময় থাকতে সকলকে নিজ নিজ স্থান থেকে সর্বোচ্চটা দিয়ে এগিয়ে আসতে হবে। মানুষকে সাহায্য করেন, বিনিময়ে অনুরোধ করেন যেন ঘর থেকে তারা বাহির না হয়। আর সকলের কাছে অনুরোধ থাকবে সাহায্য করলে যারা সাহায্য নিবে তাদের ছবি তুলবেন না, আপলোড ও দিবেন না। এখনই আমাদের সকলেই সচেতন হওয়া উচিত। এটাও একরকমের যুদ্ধ, তাই সকলের সহযোগিতা একান্ত কাম্য। আমারা সম্মিলিত সহযোগিতার মাধ্যমে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ ও নিন্ম আয়ের মানুষদের সাহায্য এগিয়ে আসতে পারি।