রাঙ্গুনিয়ায় ২৪ ঘন্টার ব্যবধানে পৃথক তিন স্থানে অগ্নিকান্ড

31

রাঙ্গুনিয়া প্রতিনিধিঃ রাঙ্গুনিয়ায় ২৪ ঘন্টার ব্যবধানে পৃথক তিন স্থানে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। উপজেলার রাজানগর, রাঙ্গুনিয়া পৌরসভার ইছাখালী ও পোমরা ইউনিয়নে পৃথক এই অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) বিকাল ৫টার দিকে পোমরা ইউনিয়নের ছাইনীপাড়া এলাকায় ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ছয় বসতঘর পুড়ে যায়। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। এতে ৫ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে দাবী ক্ষতিগ্রস্তদের।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, পোমরা ছাইনীপাড়ায় বিকাল ৫টার দিকে একটি বসতঘরে হঠাৎ আগুন ধরে যায়। এতে স্থানীয় আমিনুর রহমান, হামিদুর রহমান, আব্দুল হক, সাগের আহমেদ, সাবের আহমদ, হাবিবুর রহমানের আধাপাকা বসতঘর পুড়ে যায়। ধারণা করা হচ্ছে একটি বসতঘরের গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণ থেকে এই অগ্নিকান্ডের সুত্রপাত হয়েছে।

রাঙ্গুনিয়া ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন কর্মকর্তা লিটন হাওলাদার বলেন, অগ্নিকান্ডের খবরে ঘটনাস্থলে গিয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা প্রায় ১ ঘন্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। তদন্ত সাপেক্ষে আগুনের সুত্রপাত সম্পর্কে জানা যাবে।

এদিকে এরআগে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে রাঙ্গুনিয়া পৌরসভার ইছাখালী সদরে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ৪টি ঔষধের দোকান, ২টি ইলেকট্রনিক্স সামগ্রী মেরামতের দোকান, ২টি কুলিং কর্ণার, ১টি স্টেশনারী ও ১টি মুরগীর দোকান পুড়ে যায়। হাসপাতালের বর্জ্যের আগুন থেকে পরিকল্পিতভাবে এই আগুন লাগানো হয়েছে বলে অভিযোগ ক্ষতিগ্রস্তদের। এই ব্যাপারে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করার কথা বলেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মাসুদুর রহমান।

এরআগে গত বুধবার (২৫ মার্চ) বিকাল ৫টার দিকে উপজেলার রাজানগর ইউনিয়নের ৫নম্বর ওয়ার্ড ঠান্ডাছড়ি নতুন পাড়া এলাকায় ছয়টি বসতঘর পুড়ে গেছে। চুলার আগুন থেকে এই অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, মার্চ থেকে মে এই তিনমাসে সবকিছু শুষ্ক থাকে এবং তাপদাহও থাকে অধিক। যেকারণে আগুন লাগার সম্ভাবনা বেশি থাকে। তাই অগ্নিকান্ডের সম্ভাব্য ঝুঁকিপূর্ণ স্থানগুলো চিহ্নিত করে প্রযোজনীয় সতর্কতা অবলম্বন করার আহবান সংশ্লিষ্টদের।