শ্রীপুরে ভাড়াটিয়া কর্তৃক অবৈধ ভাবে জমি দখলের পায়তারা

9

শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধি: গাজীপুরের শ্রীপুরে অর্ধশত বছরের পুরোনো বরমী কো অপারেটিভ সোসাইটি’র বৈধ মালিকানাধীন ১১ শতাংশ জমি ভাড়াটিয়া কর্তৃক কতিপয় মুক্তিযোদ্ধাদের প্রভাব খাটিয়ে লীজ নিয়ে দখলের চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে গত১৭ অক্টোবর শনিবার দুপুরে সোসাইটির সদস্যরা সোসাইটির অফিসে এক প্রতিবাদ সভা করেন। এসময় বরমী কো অপারেটিভ সোসাইটির আহ্বায়ক সাহাবুদ্দিন বিএসসি অভিযোগ করে বলেন, উপজেলার বরমী মৌজার ৮৯নং খতিয়ানের ১৫৮নং দাগের ১১ শতাংশ জমি ১৯৫২ সনে বরমী কো অপারেটিভ সোসাইটি নামের সংগঠনটি শ্রী নিবারনী সুন্দুরী সাহার নিকট থেকে সোসাইটি কর্তৃপক্ষ ক্রয়সূত্রে মালিক হয়ে ভোগদখল করে আসছিল। পরবর্তীতে ওই জমিতে দোকান ঘর ও সোসাইটির অফিস নির্মাণ করে দোকানের একংশ ওই সমিতিরই সদস্য বরামা গ্রামের মৃত আব্দুল হাসেমের ছেলে আব্দুল আউয়ালের নিকট ভাড়া দিলে তিনি সেখানে ব্যবসা করে আসছেন। সম্প্রতি আব্দুল আউয়াল ও অপর সদস্য মুক্তিযোদ্ধা সিরাজ উদ্দিন সোসাইটির অফিস ও দোকান ঘরের জমি স্থানীয় অপর এক প্রভাবশালী মুক্তিযোদ্ধা প্রভাব খাটিয়া তাদের নামে অবৈধ ভাবে লীজ নেয়ার চেষ্টা করে। বিষয়টি বরমী বাজার বনিক সমিতি কর্তৃপক্ষ ও সোসাইটির সকল সদস্যরা জানতে পেরে প্রতিপক্ষের সাথে স্থানীয় ভাবে একাধিকবার আপোষ মিমাংসার চেষ্টা করে।
বরমী কো অপারেটিভ সোসাইটির সাবেক সাধারণ সম্পাদক হাসমত আলী জানান, বৈধ সরকারি সম্পত্তি ভাড়াটিয়া ও অবৈধ দখলদাররা লীজ নেয়ার কোন এখতিয়ার নেই। যারা বৈধ মালিক তারাই ভাড়াটিয়াদের মাধ্যমে বাজারের জমি সরকারি বিধিমোতাবেক ভোগদখল করেন।
প্রতিবাদ সভায় বরমী কো-অপারেটিভ সোসাইটির সদস্য মোস্তফা কামালের উপস্থাপনায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- বরমী বাজার পরিচালনা কমিটির সভাপতি আবুল হাসেম মেলেটারি, সাবেক সাধারণ সম্পাদক হারুন অর রশিদ বাদল, বর্তমান সাধারণ সম্পাদক জহিরুল ইসলাম সরকার, সোসাইটির সদস্য মাসুদ সরকার, মোশারফ হোসেন রতন ফকির, আমির সিরাজী, হাবিবুর রহমান, শরিফুল ইসলামসহ স্থানীয় গন্যমান্যরা।
এ ব্যাপারে আব্দুল আউয়াল ও তার সহযোগীদের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তাদের বক্তব্য পাওয়া যায়নি।
এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার তাসলিমা মোস্তারি জানান, জমির লীজ সংক্রান্ত বিষয়ে তিনি কোন অভিযোগ পাননি, অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিবেন।