রাণীনগর-আবাদপুকুর রাস্তার হাতিরপুল ব্রিজ ভেঙ্গে যাওয়ায় লাখো মানুষ চরম দূর্ভোগে

60

কাজী আনিছুর রহমান,রাণীনগর (নওগাঁ) : নওগাঁর রাণীনগর-আবাদপুকুর রাস্তার হাতিরপুল নামক ব্রিজ ভেঙ্গে যাওয়ায় গত চারদিন ধরে যান চলাচল বন্ধ হয়ে পরেছে। ব্রিটিশ আমলে নির্র্মিত ঐতিহ্যবাহী হাতির পুল ব্রিজ দীর্ঘ দিন ধরে ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় থাকার পর অবশেষে গত সোমবার বিকেলে ব্রিজের একপাশ ভেঙ্গে যায়। এর পর মঙ্গলবার সকাল থেকে চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয় । এতে রাণীনগর সদর ও নওগাঁ জেলার সাথে পুর্বাঞ্চলের যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায় । ফলে চলতি জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষার্থীসহ উপজেলার লাখো মানুষ পরেছে চরম দূর্ভোগে।
রাণীনগর-আবাদপুকুর রাস্তার রাণীনগর সদর থেকে মাত্র তিন কিলোমিটার দুরে একটি খালের উপর ব্রিটিশ আমলে চুন-সুরকি দিয়ে নির্মান করা হয় হাতিরপুল নামক এই ব্রিজটি। ব্রিজটি হাতির পিঠের ন্যায় আকৃতি হওয়ায় হাতিরপুল ব্রিজ নামে পরিচিতি লাভ করে। এক সময়ের কাঁদা-মাটির রাস্তা পাকাকরণ হলেও ব্রিজটি বহাল রাখা হয়। অতিরিক্ত ভারী যানবাহন চলাচল করায় দীর্ঘ দিন আগের ব্রিজটির মাঝখানে দেবে গিয়ে বিভিন্ন স্থানে ফাটল ধ্বরে হেলে পরে। বছর খানেক আগে ব্রিজটি কোন রকমে সংস্কার করে যানবাহন চলাচলের উপযোগী করা হয়। ইতি মধ্যে নওগাঁ সড়ক ও জনপদ অধিদপ্তরের আওতায় রাণীনগর থেকে কালীগঞ্জ পর্যন্ত ২২ কিলোমিটার রাস্তা আরো প্রস্বস্ত ও পূনরায় পাকাকরণ এবং ৪টি ব্রিজ ও ২৬টি কালভার্ট নির্মান কাজের টেন্ডার হয়। এর পর রাস্তায় ব্রিজ-কালভার্ট নির্মানের জন্য করজগ্রাম, খানপুকুর, আমগ্রামের মোড়সহ কয়েকটি স্থানে যানবাহন চলাচলে বিকল্প রাস্তা তৈরি করে কাজ শুরু করা হলেও ঝুঁকিপূর্ণ হাতিরপুল ব্রিজ বহাল রেখে এবং বিকল্প রাস্তা তৈরি না করেই পার্শ্বে নতুন ব্রিজের কাজ শুরু করে সংশ্লিষ্ঠ ঠিকাদার । পথচারীরা বলছেন,হাতিরপুল ব্রিজটি এতোটায় ঝুঁকিপূর্ণ ছিল যে ব্রিজের উপরে দেবে যাওয়া অংশ লাল ফিতা দিয়ে ঘিড়ে রাখা হয়েছিল। পথচারীরা যানবাহনে অত্যন্ত ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করলেও কর্তৃপক্ষ বিকল্প কোন রাস্তা তৈরি করেনি। এছাড়া রাস্তায় বিভিন্ন ব্রিজ/কালভার্ট নির্মান কাজ চললেও এই ব্রিজের পার্শ্বে নিমানার্ধীন ব্রিজটি পাইলিং করে উইং ওয়াল নির্মান করার পর রহস্যজনক কারনে কাজ বন্ধ রেখেছে। ফলে কবে নাগাদ এই ব্রিজের কাজ শেষ হবে তা বলতে পারছেনা কেউ। এরই মধ্যে গত সোমবার সন্ধ্যায় ঝুঁকিপূর্ণ ব্রিজটির এক পাশ ভেঙ্গে পরে। এতে স্থানীয়রা এবং সংশ্লিষ্টরা সকল প্রকার যান চলাচল বন্ধ করে দেয় । এতে রাণীনগর সদর ও নওগাঁ জেলা সদরের সাথে রাণীনগর পূর্বাঞ্চলের যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায় । ফলে কৃষিপণ্য ও ব্যবসার মালামাল পরিবহনে এবং চলতি জেএসসি,জেডিসি পরীক্ষার্থীসহ এলাকার লাখো মানুষ চরম দূর্ভোগে পরেছে। অবশ্য ইতি মধ্যে সংশ্লিষ্টরা তরিঘড়ি করে একটি বেইলি ব্রিজ নির্মান কাজ শুরু করেছে ।
এব্যাপারে সড়ক ও জনপদ বিভাগের নওগাঁ জেলা নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল হামিদ বলেন, ওই স্থানে ইতি মধ্যে একটি অস্থায়ী বেইলি ব্রিজ নির্মান কাজ শুরু হয়েছে । আশা করছি ২/১ দিনের মধ্যেই ব্রিজ নির্মান কাজ শেষ হবে। কাজ শেষ হলেই যোগযোগ ব্যবস্থা স্বাভাবিক হবে। এছাড়া খালে পানি বেশি থাকার কারনে নির্মাধীন নতুন ব্রিজের কাজ বন্ধ রয়েছে । আগামী সপ্তাহ নাগাদ ওই ব্রিজের কাজ শুরু হতে পারে বলে জানিয়েছেন তিনি।