কটিয়াদীতে নকল পণ্যের কারখানায় ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান

302

মাইনুল হক মেনু , স্টাফ রিপোর্টার কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী উপজেলার জালালপুর ইউনিয়নের চরনোয়াকান্দি গ্রামের মৃত সিরাজ উদ্দিনের ছেলে আঃ কাদিরের বাড়িতে প্রাণ ও হকসহ ৫০টির বেশি নকল পণ্যের কারখানায় ও কটিয়াদী থানা সংলগ্ন বাধন রেস্টুরেন্টে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান পরিচালনা করে ১ লক্ষ ১৫ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করন কটিয়াদী উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আক্তারুন নেছা। সোমবার দুপুরে কটিয়াদী উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আক্তারুন নেছা উপজেলার জালালপুর ইউনিয়নের চরনোয়াকান্দি গ্রামের মৃত সিরাজ উদ্দিনের ছেলে আঃ কাদিরের বাড়ির বসত ঘর ও দুইটি গোডাউন থেকে প্রাণ ও হকসহ ৫০টির বেশি বিভিন্ন নামী দামী কোম্পানীর মোড়ক, প্যাকেট ব্যবহার করে নকল চিপস, চকলেট, জুস, লিচু, চাটনী, বিস্কুট, সেমাই নোডুস, রং, ক্যামিক্যাল, নকল পণ্য তৈরীর মেশিন ও সরঞ্জামসহ ২০/৩০ বস্তা মালামাল জব্দ করে কারখানার মালিক আঃ কাদিরকে নগদ এক ল টাকা জরিমানা করে তা আদায় করেন। পরে জনসাধারনের উপস্থিতিতে এসকল নকল পন্য পুড়িয়ে দেওয়া দেয়। আরেক অভিযানে কটিয়াদী মডেল থানা সংলগ্ন বাধন রেস্টুরেন্টকে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাবার বিক্রি করা ও মিষ্টর প্যাকেটের ওজন বেশিহওয়ায় ১৫ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন। ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনার সময় উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আক্তারুন নেছাকে সহযোগিতা করেন কটিয়াদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সেনেটারী ইন্সপেক্টার মো. সজিম উদ্দিন, সহযোগি সেনেটারী ইন্সপেক্টার মাহাবুবুর রহমান, এস.আই মনিরুজ্জামানসহ একদল পুলিশ। উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্টেট মোছা. আকতারুন নেছা বলেন ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনের ২০০৯ এর বিভিন্ন ধারায় নকল পন্য তৈরী বাজার জাতের অপরাধে কারখানার মালিক আ. কাদির ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাবার প্রস্তুত করার কারনে হোটেলের মালিকে পনেরো হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।